1. multicare.net@gmail.com : নিউজ জনতার সময় :
শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০৮:৫১ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
শেখ হাসিনার উপহার পেলেন ১৮ হাজার গৃহহীন পরিবার।। ভোলার চরফ্যাশনে বিয়ের প্রতারণা থেকে বাছতে চায় সাগর।। উপজেলা নির্বাচন চরফ্যাসনে চেয়ারম্যানসহ তিন প্রার্থীর নিরংকুশ বিজয়।। চরফ্যাশনে শালিসি করে দিবে বলে ঢেকে নিয়ে স্ত্রী কে দিয়ে লাঞ্চিত করার অভিযোগ।। ভোলার চরফ্যাশনে সৌদিয়া হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের বিরুদ্ধে ‘অবহেলা ও ভুল চিকিৎসার অভিযোগ’ ভোলার চরফ্যাশনে বিয়ের নামে ১০ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ।। চরফ্যাশনে রিকশা চালককে মারধর করে ফাঁকা স্টাম্পে স্বাক্ষর নিলেন ইউপি সদস্য চরফ্যাশনে চরমানিকায় জেলে চাল বিতরণ অনিয়ম।। ভোলার চরফ্যাশন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ১০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল ভোলার চরফ্যাশনে মেঘনা নদীর ঢালের মাটি কাটায় অর্থদন্ড।।

মোকাম বরিশাল বিজ্ঞ নারী শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ৫ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন।

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ৪ আগস্ট, ২০২৩
  • ৩৩ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার।।ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার শশীভুশন থানাধীন এয়াজপুর ইউনিয়নের, মোঃজয়নাল আবেদীনের ছেলে বাদী হয়ে মোঃফরিদুল আলম গত ২৪ ই জুলাই ২০২৩ ইং ৫ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার বিবরনে জানা যায়,প্রতিপক্ষরা পরভিত্ত লোভী, অসৎ প্রকৃতির ও অপহরণকারী লোক।আমি ও বিবাদীরা পাশাপাশি লোক। তিনি বলেন ১ এই মামলায় ১ নং সাক্ষী আমার মেয়ে মোসাঃঅন্তরা রুবি আমার মেয়ের জন্ম তারিখ (২১ ই ফ্রেব্রয়ারী ২০০৯) ইং বর্তমান বয়স ১৪ বছর প্রায় ১৬ বছর পূর্বে উক্ত মামলায় ৩ নং সাক্ষী সিমু
বেগমকে আমি বিয়ে করেছিলাম। আমার ঐ ঘরেই জন্ম নেয় অন্তরা রুবি এরপর মামলার ২ নং সাক্ষীর সাথে আমার স্ত্রী চলে যায়। তিনি বলেন আমি ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে আর কোন বিবাহ করিনাই বর্তমানে আমার মেয়ে গোলদার হাট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৯ ম শ্রেণির শিক্ষার্থী। ফরিদুল আলম জানান আমার মেয়ে স্কুলে আসা যাওয়ার সময় জাহাঙ্গীর বেপারীর ছেলে ১ নং আসামী জাফর বেপারি প্রায় প্রেমের প্রস্তাব দেয়,উক্ত ঘটনাটি আমার মেয়ে আমাকে জানায়।তখন আমি ১ নং আসামী জাফর বেপারিকে আমার মেয়েকে কোন রকম ডিস্টার্ব না কারার জন্য অনুরোধ করি তাতে জাফর বেপারি আরো ক্ষিপ্ত হয়ে পরবর্তীতে উক্ত ঘটনায় জাফর বেপারির বাবা ২ নং আসামী জাহাঙ্গীর বেপারী ও ৫ নং আসামী মোঃজাহিদুলকে জানাই,পরবর্তীতে তারা কোন কর্নপাত করেনি। তারপর বিবাদীরা এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে আমাকে বিভিন্ন হুমকি ধামকি দেয় এতে তার ক্ষেন্ত নয়।তিনি আরও বলেন ভিকটিম গত(৭ ই জুলাই ২০২৩)মামলার সাক্ষী ২ সজিব হোসেন ও ৩ নং সুমি বেগমের বরিশালের বাসায় বেড়াইতে আসে, তখন জাফর বেপারি ও জাহিদুল জানতে পারে এবং আমার মেয়েকে অপহরণ করার জন্য বিভিন্ন সুযোগ খুজতে থাকে। এরপর ধারাবাহিকতায় গত (৯ ই জুলাই ২০২৩) ইং রোজ রবিবার সকাল ১০ টার সময় ১১ নং ওয়ার্ড চাঁদমারী এলাকায় ২ নং ও ৩ নং সাক্ষীর বাসা থেকে আমার কিছু কেনা কাটার জন্য রাস্তার পার্শে দোকানে আসে,পুর্ব থেকে ওঁৎ পেতে থাকা জাফর বেপারি ও জাহিদুল আসামীরা একটি মাইক্রোবাসটি ঘটনাস্থানে অবস্থান করে। এরপর আমার মেয়ে কিছু বুঝতে না পেরে জাফর ও জাহিদুল মিলিয়া আমার মেয়ের মুখে রুমাল দিয়ে মাইক্রোতে তুলে দক্ষিণ দিকে নিয়ে যায়। তখন আমার মেয়ে ডাকচিৎকার দিতে পারেনি। এরপর ২ ও ৩ নং সাক্ষীর তাদের ভাড়াটিয়া বাসায় না পেয়ে তাদের অনেক খোজাখুজি করেন,তারপর এই ঘটনা টি আমাকে জানায়। ঘটনা টি আমি শুনে ভোলা থেকে বরিশাল আসি।এসে দেখি আমার পূর্বের স্ত্রী সিমু বেগম আমার মেয়েকে না পাওয়ায় বরিশাল কোতোয়ালি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন যাহার নং৬৭১/১১-০৭-২০২৩ ইং।এরপর গত ১২ ই জুলাই ২০২৩ ইং তারিখে আমার মেয়ে আমাকে মোবাইলে কল দিয়ে বলে বাবা আমার জীবন শেষ আমার মেয়ে আসামীদের নাম বলার সাথে সাথে মোবাইল ফোনটি কেটে দেয়। ফরিদুল আলম বলেন আমার ধারণা আসামীরা আমার মেয়েকে অপহরণ করে নিয়ে বিদেশে পাচার করে দিতে পারে এবং আমার মেয়েকে ধর্ষণ করে মেরে ফেলতে পারে। তিনি আরও বলেন আমি আমার মেয়েকে অনেক খোজাখুজি করে না পেয়ে এই ঘটনার পর থেকে আসামিদেরকে বাড়িতে পাওয়া যায় না। আমার মেয়ে কে না পেয়ে গত ১৭ ই আগষ্ট ২০২৩ ইংতারিখ রোজ সোমবার বিকাল ৫ টার সময় বরিশাল কোতোয়ালি থানায় গেলে থানা কতৃপক্ষ আমাকে বিজ্ঞ আদালতে আশ্রয় নিতে বলেন।এরপর তিনি বিজ্ঞ আদালতে মোকদ্দমা দায়ের করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
Theme Customized BY LatestNews